মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

পূর্ববর্তী মামলার রায়

গন্য মান্য ব্যক্তি বর্গের উপস্থীথিতে চেয়ারম্যান সাহেব গ্রাম আদালতের আইনের মাধ্যমে বিচার কার্য সম্পন্ন করেন।

 

 ৬নংগোগা ইউনিয়ন গ্রাম্য আদালত

উপজেলাঃ শার্শা,জেলাঃ যশোর।

‘‘হুকুম নামা’’

 

হুকুম নামা, ইং ২৮-০১-২০১৭  তারিখ হইতে ইং ২১-০৩-২০১৭ তারিখ পর্যমত্ম।

মামলা নংঃ    /১৭        তারিখঃ  ২৯-০১-২০১৮  ইং

 

হুকুমের তারিখ

বিচার কার্যযে ভাবে পরিচালিত হইল

হুকুম কর্মকর্তার সিদ্ধামত্ম এবং স্বাÿর

২৮-০১-১৭

 

 

 

 

 

১০/০২/২০১৭

 

 

 

 

 

 

 

২১/০৩/২০১৭

 

 

 

 

 

 

 

 

বাদীর আবেদনের প্রেÿÿতে কেসটি গ্রহন করা হইল। বিবাদীকে নোটিশ দেওয়ার আদেশ হইল। কেসের দিন আগামী ১০-০২-২০১৭ ইং তারিখ ধার্য করা হইল।

 

                                                     স্বাÿরিত

                                                    

অদ্য তারিখে কেসের দিন থাকায় বাদী হাজিরা দিয়াছে। কিন্তু বিবাদী পÿ সময় নেওয়ায়। কেসের দিন আগামী ২১/০৩/২০১৭ ইং তারিখে ধার্য্য করা হইল

                                                                                                              

                                                   

                                                    স্বাÿরিত

                                                    

 

অদ্য কেসের দিন থাকায় বাদী হাজিরা দিয়াছে। বিবাদী হাজির দিয়াছে এবং প্রতিনিধি নিয়োগ করিয়াছে। আলোচনা অমেত্ম দেখা যায়, ছবেলার নামে দলিলকৃত জমি আর এস জরিপে ৪২৬ ও ৯১৪ পর্চায় (১০৪) এক একর চার শতক জমি রেকর্ড হয়। এবং বাদীর প্রিন্ট পর্চায় দেখা যায় ছবেলার মেয়ে সমত্মান না থাকায় ৮ জন পুত্র সমত্মান উক্ত জমির মালিক। অদ্য আদালত এই সিদ্ধামেত্ম উপনিত হয় যে, ছবেলার  ৮ পুত্র সমত্মান উক্ত জমি পাইবে।

                                                                                                         

                                                     স্বাÿরিত

                                                    

 

 

 

অদ্য ইং ২৮/০১/২০১৭, ১০/০২/২০১৭, ২১/০৩/২০১৭, তারিখে কেচের দিন থাকায় বাদী বিবাদী হাজিরা দিয়াছে এবং প্রতিনিধি নিয়োগ করিয়াছে। কাগজ পত্রে আর এস এ জরিপে দেখা যায় ৪২৬ ,৯১৪ নং পর্চায় জমি ছবেলার নামে রেকর্ড হইয়াছে। (১০৪) এক একর চার শতক জমি, ছবেলার স্বামী মৃত্যু বরণ করেন এবং ছবেলাও মৃত্যু বরণ করেন। ছবেলার নামে রেকর্ড কৃত জমি তার ওয়ারেশ গনের নামে পৌছায়। ছবেলার গর্ভে ৮ পুত্র সমত্মান আছে ও  ৮ পুত্র সমত্মান উক্ত জমির মালিক। অদ্য আদালত এই সিদ্ধামেত্ম উপনিত হয় যে, রেকর্ড অনুযায়ী একজন সারভেয়াচ নিয়া ৫নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্যগন অংশ মোতাবেক ভাগ করিয়া দেবে। মায়ের নামে রেকর্ড থাকায় মা মৃত্যু বরণ করায় জমির মালিক তার ওয়ারেশ গন প্রাপ্প। আর কোন আলোচনা না থাকায় আদালত এখানে সমাপ্তি ঘোষনা করেন।  

 

                                                    

                                           

                                 স্বাÿর

                                   তাং-

 

 

       

 

 

৬নংগোগা ইউনিয়ন গ্রাম্য আদালত

উপজেলাঃ শার্শা,জেলাঃ যশোর।

‘‘হুকুম নামা’’

 

হুকুম নামা, ইং ৩০-১০-২০১৭  তারিখ হইতে ইং ১১-১১-২০১৭ তারিখ পর্যমত্ম।

মামলা নংঃ    /১৭        তারিখঃ  ২৯-০১-২০১৮  ইং

 

হুকুমের তারিখ

বিচার কার্যযে ভাবে পরিচালিত হইল

হুকুম কর্মকর্তার সিদ্ধামত্ম এবং স্বাÿর

৩০-১০-১৭

 

 

 

 

 

০৪/১১/২০১৭

 

 

 

 

 

 

 

১১/১১/২০১৭

 

 

 

 

 

 

 

 

বাদীর আবেদনের প্রেÿÿতে কেসটি গ্রহন করা হইল। বিবাদীকে নোটিশ দেওয়ার আদেশ হইল। কেসের দিন আগামী ০৪-১১-২০১৭ ইং তারিখ ধার্য করা হইল।

 

                                                     স্বাÿরিত

                                                     তাং-

অদ্য তারিখে কেসের দিন থাকায় বাদী হাজিরা দিয়াছে। কিন্তু বিবাদী পÿ সময় নেওয়ায়। কেসের দিন আগামী ১১/১১/২০১৭ ইং তারিখে ধার্য্য করা হইল

                                                                                                              

                                                   

                                                    স্বাÿরিত

                                                     তাং-

 

অদ্য কেসের দিন থাকায় বাদী হাজিরা দিয়াছে। বিবাদী হাজির হয় নাই। উক্ত অভিযোগটি উচ্চ আদালতে প্রেরনের জন্য বলা গেল।

                                                                                                         

                                                     স্বাÿরিত

                                                     তাং-

 

 

 

অদ্য ইং ৩০/১০/২০১৭, ০৪/১১/২০১৭, ১১/১১/২০১৭, তারিখে শুনানী  ধায্য করিয়া পর পর তিনটি নোটিশ প্রেরণ করা হয়। কিন্তু বিবাদীগন কোন নোটিশ গ্রহন করে নাই । উক্ত শুনানীর দিন বাদী পÿ হাজির হয় ও প্রতিনিধি নিয়োগ করে কিন্তু বিবাদী গন হাজির হয় নাই ও প্রতিনিধি নিয়োগ করে নাই। সুতরাং আদালত এই সিদ্ধামেত্ম উপনীত হয় যে, যেহেতু বিবাদী গণকে পর পর ৩ (তিনটি) নোটিশ প্রেরণ করা হয় কিন্তু বিবাদীগন নোটিশ গ্রহন না করিয়া ও আদালতে হাজির না হইয়া আদালতকে অবমাননা করে। ফলে বিষয়টি গ্রাম্য আদালতে মিমাংসা করা সম্ভব হয় নাই। সুতরাং গ্রাম্য আদালতকে অবমাননা ও ন্যায় বিচারের স্বার্থে প্রতিপÿগণের সাজা হওয়া উচিত। আদালতের  সিদ্ধামত্ম মোতাবেক ন্যায় বিচারের স্বার্থে বাদীগনকে আপনার দপ্তরে যাওয়ার জন্য পরামর্শ দেওয়া হইল।

 

 

                                                    

                                           

                                 স্বাÿর

                                   তাং-

 

 

       

 

 

 

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter